শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমুহে অনলাইনে পিয়ার ইন্সপেকশন জানেন কি ?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমুহে অনলাইনে পিয়ার ইন্সপেকশন

“মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রূপকল্প-২০২১” এবং SDG-4 এর সফল বাস্তবায়ন, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও বিশ্বমানে উন্নীতকরমের মাধ্যমে সুশিক্ষিত, দক্ষ, মানব সম্পদ সৃজনের লক্ষে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্টানের মান যাচাই ও করণীয় সম্পর্কে তাৎক্ষণিক সুপারিশ প্রদান ও মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণের লক্ষে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের সরাসরি পরিচালনায় দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বার্ষিক পরিদর্শনের আওতায় আনার জন্য “পিয়ার ইন্সপেকশন” (Peer Inspection) [ পিয়ার ইন্সপেকশন সম্পর্কে বিস্তারিত ব্লগের শেষে দেয়া আছে ] কর্মসূচি চালুর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এ কর্মসূচি চালুর লক্ষে প্রস্তুতকৃত সফটওয়ারে দেশের প্রায় ৩৬০০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিবন্ধনের কার্যক্রম আজ (২৫-১১-২০১৭) থেকে শুরু হয়েছে। dia info হতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের মোবাইলে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড সরবরাহ করা হয়েছে। এ ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ডিআইএ এর নির্দেশনা অনুযায়ী নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় তথ্য “পিয়ার ইন্সপেকশন সফটওয়ারে” আপলোড করবেন।

তথ্য আপলোডের সময়সীমা : ২৫/১১/২০১৭ খ্রি. হতে ০৩/১২/২০১৭ খ্রি.

সফটওয়্যার লিংক – ০১. www.dia.nixtecsys.com

সফটওয়্যার লিংক – ০২. www.dia.gov.bd

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের অফিস আদেশ দেখতে এখানে ক্লিক করুন
http://bit.ly/2jr9X9m

এবার জেনে নিন পিয়ার ইন্সপেকশন কী

পিয়ার ইন্সপেকশন হল এক প্রতিষ্ঠান আরেক প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক পরিদর্শন। জানা যায়, মোট ১১৪টি বিষয়ে মনিটরিং করা হবে অনলাইনে একটি বিশেষ সফটওয়্যারের মাধ্যমে। এর মাধ্যমে আরও জানা যাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকের পেশাদারিত্ব-শ্রেণি পাঠদান মূল্যায়ন, শিক্ষকের ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য (এসিআর), প্রতিষ্ঠান প্রধানের একাডেমিক কার্যক্রম মূল্যায়ন, শিার্থীর কৃতিত্ব মূল্যায়ন, কাস রুটিন পর্যালোচনা, শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সমাবেশ ও শ্রেণিকক্ষের পরিবেশ। এ ছাড়াও স্যানিটেশন পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ, শিক্ষার্থীর আসনব্যবস্থা, মিলনায়তন, পাঠাগার, বিজ্ঞানাগার, ল্যাংগুয়েজ ল্যাব, কম্পিউটার ল্যাবের তথ্য, শিক্ষার্থীর ভাষা ব্যবহারের দক্ষতা যাচাই, আয়-ব্যয় বিবরণী, সহশিক্ষা কার্যক্রম ও অভিভাবক-শিক সম্পর্ক ইত্যাদি।

ডিআইএর কর্মকর্তারা জানান, অনলাইনে প্রতিদিন ইনপুট দেবেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্য-প্রযুক্তিবিষয়ক শিক্ষকরা। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান অন্য একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করবেন। পরিদর্শনকালীন পাওয়া তথ্য-উপাত্ত নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করবেন। প্রতিষ্ঠান নিজের দেওয়া তথ্য এবং পিয়ার ইন্সপেক্টরের তথ্য যাছাই করে প্রতিষ্ঠানের গ্রেডিং করা হবে। তবে পরিদর্শনপূর্বক চিঠি দিয়ে অবহিত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*