মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর সেট কিভাবে করবেন ?

image_pdfimage_print

মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর সেট কিভাবে করবেন ?

মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর সেট করার নিয়ম আজ আমরা জানবো কিভারে প্রজেক্টর সেট করতে এবং এর যত্ন নিতে হয়। প্রজেক্টর সেট করতে হলে আপনার যা যা লাগবে একটি ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার একটি প্রজেক্টর একটি প্রজেক্টর স্ক্রিণ প্রজেক্টরের পাওয়ার কেবল প্রজেক্টরের ভিজিএ কেবল একটি ভোল্টেজ ষ্ট্যাবিলাইজার/ইউপিএস (এটি আবশ্যিক নয় তবে প্রজেক্টরের মতো একটি দামী ডিভাইসের অধিকতর সুরক্ষার জন্য) আপনার কাছে এই জিনিসগুলো থাকলে আপনি প্রজেক্টরের সেট করতে রেডি। প্রথমে কম্পিউটার এবং প্রজেক্টরের সাথে সংযোগ করাতে হবে এবং প্রজেক্টরের মেইন পাওয়ার ভোল্টেজ ষ্ট্যাবিলাইজার/ইউপিএস এর সাথে করতে হবে। তারপর উপযুক্ত জায়গায় প্রজেক্টর স্ক্রিণটি স্থাপন করতে হবে। প্রজেক্টর মূলত আপনার মনিটরে যা দেখায় তা ই ফোকাস করে। প্রজেক্টরে দুটো কেবল সংযুক্ত হয়। একটি পাওয়ার কেবল এবং একটি VGA (Video Graphics Array) কেবল। আসুন আমরা দেখি একটি প্রজেক্টরের পেছনের অংশে কি কি থাকে

এখানে উপরে যে হলুদ পোর্টটি দেখছেন সেটি হল সিডি বা ডিভিডি থেকে আস ভিডিও কেবল। যদি কম্পিউটার বাদে কোন সিডি বা ডিভিডি বা কোন ক্যামেরার সাথে প্রজেক্টরকে সেট করতে চান তাহলে এটি ব্যবহার করবেন। আর নীল যে PC IN লেখা পোর্টটি দেখছেন সেটি হল VGA (Video Graphics Array) কেবল। এর সংযোগ কম্পিউটারের CPU (Central Processing Unit) এর পেছনের VGA আউটপুট থেকে আসবে। যেখানে আমরা মনিটরের সংযোগ দেই সেখান থেকে। আসুন এখন দেখি ভিজিএ কেবল। প্রজেক্টরের সাথে একটি এক্সট্রা VGA কেবল দেয়া থাকে। এটি দেখতে নীল রং

এর এটির দুই দিকে একই দেখতে। যে কোন একদিকে অপরদিকে ব্যবহার করা যাবে। এই ভিজিএ কেবলটির একপ্রান্ত প্রজেক্টরে অপর প্রান্ত ল্যাপটপ বা ডেস্কটপে এবং পাওয়ার ক্যাবল ভোল্টেজ ষ্ট্যাবিলাইজার/ইউপিএস’এ লাগিয়ে প্রজেক্টর চালু করুন। এবার কম্পিউটার ও চালু করুন। প্রজেক্টরে নীল রং এসে থেমে থাকলেও সমস্যা নেই। অপেক্ষা করুন কম্পিউটার বুট করে ডেক্সটপে আসলেই প্রজেক্টরের প্রক্ষেপিত আলোতে তা ফুটে উঠবে। না আসলে কম্পিউটার থেকে এরপর প্রজেক্টরে লাইন পাওয়ানোর জন্য ল্যাপটপের FN কি চেপে উপরের F3 (ল্যাপটপ ভেদে ভিন্ন হতে পারে) চাপুন। দেখবেন প্রজেক্টরের স্ক্রিণে ছবি/লিখা/ভিডিও দেখা যাচ্ছে। FN Key কোথায় থাকে দেখুন। এবার প্রজেক্টরের সামনের লেন্সের উপরের নবটি আস্তে আস্তে ঘুরিয়ে এডজাষ্ট করে নিতে হবে। যাতে করে নিখুঁতভাবে ছবি/লিখা/ভিডিও স্ক্রিণে প্রদর্শিত হয়। এবার প্রজেক্টরের নিচে দেয়া পা এর মতো চাকাগুলো ঘুরিয়ে এবং প্রজেক্টরটি সাবধানে সামনে-পিছনে করে প্রয়োজনীয় মাপে স্ক্রিণে এডজাষ্ট করে নিন। প্রজেক্টরটির চালুর পর লক্ষ্য রাখবেন যেন এটির চারপাশ খোলামেলা থাকে যাতে করে এর গরম বাতাস সহজেই কুলিং ফ্যানের মাধ্যমে বেরিয়ে যেতে পারে। খুব বেশী প্রয়োজন না হলে একনাগাড়ে দীর্ঘ সময় প্রজেক্টর ব্যবহার করবেনা। এতে প্রজেক্টরের ল্যাম্পের আয়ু কমে যায়। একান্ত প্রয়োজন হলে ৩/৩.৫ ঘন্টা পর মাঝে ১০ মিনিট প্রজেক্টর বন্ধ রাখতে পারেন। প্রজেক্টরের কাজ শেষ হলে এটি বন্ধ করে সাথে সাথে ব্যাগে ঢুকাবেননা। এটি ঠান্ডা হতে ৫/১০ মিনিট সময় দিন। প্রজেক্টরের সামনের লেন্সে হাত দেবেন না। ধূলাবালি থাকলে নরম টিসু/কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করুন। প্রজেক্টর যদি ফিজিক্যাল ড্যামেজ হয় যেমন- কোন অংশ ভেংগে যায়, পুড়ে যায় অথবা এর ওয়ারেন্টি ষ্টিকার তুলে ফেলেন। ওয়ারেন্টি থাকাকালীন সময়ে প্রজেক্টরে কোন ধরণের সমস্যা দেখা দিলে শুধু মাত্র বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানকারীর কাছে এটি নিয়ে যাবেন। অন্যকেউ এটি মেরামতের চেষ্টা করলে আপনার ওয়ারেন্টি বাতিল হয়ে যেতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Please wait...

Subscribe to our Site

Want to be notified when our article is published? Enter your email address and name below to be the first to know.