জে এস সি পরীক্ষার গণিতের প্রস্তুতি

image_pdfimage_print
জে.এস.সি পরীক্ষার্থীবৃন্দ তোমাদের জন্য রইল অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

 

তোমাদেরকে গণিত সৃজনশীল (রচনামূলক) প্রশ্ন ও বহুনির্বাচনি অভীক্ষা মোট ৬০+৪০=১০০ নম্বরের প্রশ্নে মোট সময় দেওয়া হবে ৩ ঘণ্টা। এ বছর গণিত সৃজনশীল রচনামূলক প্রশ্নে তোমরা মোট ৯টি প্রশ্ন দেখতে পাবে আর তোমাদের উত্তর করতে হবে ৬টি প্রশ্নের। প্রতিটি সৃজনশীল প্রশ্নের নম্বর ১০ করে ৬টি প্রশ্নের নম্বর থাকবে ৬x১০=৬০। মনে রাখবে প্রশ্নে ৪টি বিভাগ/অংশ থাকবে।

 

‘ক’ বিভাগ অর্থাত্ পাটিগণিত অংশ থেকে প্রশ্ন থাকবে ২টি, উত্তর করতে হবে কমপক্ষে ১টি।

 

‘খ’ বিভাগ অর্থাত্ বীজগণিত অংশ থেকে প্রশ্ন থাকবে ৩টি, উত্তর করতে হবে কমপক্ষে ১টি।

 

‘গ’ বিভাগ অর্থাত্ জ্যামিতি অংশ থেকে প্রশ্ন থাকবে ৩টি, উত্তর করতে হবে কমপক্ষে ১টি।

 

‘ঘ’ বিভাগ অর্থাত্ তথ্য ও উপাত্ত অংশ থেকে প্রশ্ন থাকবে ১টি, এই অংশে কোনো বিকল্প প্রশ্ন থাকবে না। ১টি প্রশ্ন থাকবে ১টিরই উত্তর করতে হবে।

 

মনে রাখবে, ক, খ, গ ও ঘ বিভাগ থেকে ১টি করে মোট ৪টি প্রশ্নের উত্তর করে তোমাকে ক, খ, গ থেকে আরো যেকোনো ২টি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। অর্থাত্, প্রত্যেক বিভাগ থেকে কমপক্ষে একটি করে মোট ছয়টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।

 

শিক্ষকতার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার আলোকে গণিতে পূর্ণ নম্বর পাওয়ার জন্য তোমাদের প্রতি আমার কিছু পরামর্শ রইল—

 

প্রশ্ন ১ ও ২ এ থাকবে প্রথম অধ্যায়ের প্যাটার্ন, দ্বিতীয় অধ্যায়ের মুনাফা ও তৃতীয় অধ্যায়ের পরিমাপ থেকে।

 

প্যাটার্ন (অনুশীলনী- ১) এর প্রশ্নগুলোর সমাধান যেকোনো যুক্তিসঙ্গত নিয়ম গ্রহণযোগ্য হবে। এ অধ্যায়টি এ বছর একটু বেশি করে practise করো। আশা করি উপকৃত হবে।

 

মুনাফা (অনুশীলনী ২.১, ২.২)-এর প্রতিটি প্রশ্নের উত্তরে প্রয়েজনীয় স্থানে ‘%’ চিহ্নের ব্যবহার, উত্তরে সঠিক ‘একক’, আসন্ন উত্তরে ‘প্রায়’ লিখছ কি-না সে দিকে লক্ষ্য রাখবে। প্রশ্নের সমাধান যেকোনো যুক্তিসঙ্গত নিয়ম গ্রহণযোগ্য হবে।

 

পরিমাপ (অনুশীলনী-৩) হতে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তরে সঠিক ‘একক’, আসন্ন উত্তরে ‘প্রায়’ লিখছ কি-না সে দিকে লক্ষ্য রাখবে এবং প্রয়োজনীয় সাইড নোট দিতে ভুল করো না। (যেমন—১ ঘন সেন্টিমিটার বিশুদ্ধ পানির ওজন ১ গ্রাম, ইত্যাদি।) প্রশ্নের সমাধান যেকোনো যুক্তিসঙ্গত নিয়ম গ্রহণযোগ্য হবে। এ অধ্যায়টিও বেশি করে practise করো। আশা করি উপকৃত হবে।

 

প্রশ্ন ৩, ৪ ও ৫ এ থাকবে চতুর্থ অধ্যায়ের বীজগণিতীয় সূত্রাবলী ও প্রয়োগ, পঞ্চম অধ্যায়ের বীজগণিতীয় ভগ্নাংশ, ষষ্ঠ অধ্যায়ের সরল সমীকরণ ও সপ্তম অধ্যায়ের সেট থেকে।

 

বীজগণিতীয় সূত্রাবলী ও প্রয়োগ (অনুশীলনী- ৪.১, ৪.২, ৪.৩, ৪.৪ )-এর প্রশ্নগুলোর সমাধান যেকোনো যুক্তিসঙ্গত নিয়ম গ্রহণযোগ্য হবে। বীজগণিতীয় সূত্রাবলীর মান নির্ণয় ও প্রমাণ, ল. সা. গু এবং গ. সা. গু বেশি করে অনুশীলনী করবে। আশা করি উপকৃত হবে।

 

লেখ অঙ্কন এ ধরনের প্রশ্নের সমাধান করতে গিয়ে অবশ্যই লক্ষ্য রাখবে X-অক্ষ, Y-অক্ষ, O মূলবিন্দু এবং ক্ষুদ্রতম বর্গের কত বাহুর দৈর্ঘ্যকে একক ধরেছো তা উল্লেখ করেছ কি-না? লেখ কাগজে বিন্দু স্থাপনের পূর্বে পেন্সিল যেন সার্প করা থাকে। কারণ মোটা দাগে (সরল রেখায়) সঠিক রেখা বা ছেদ বিন্দু পাওয়া যায় না।

 

সেট (অনুশীলনী-৭)-এর প্রশ্নগুলোর সমাধান যেকোনো যুক্তিসঙ্গত নিয়ম গ্রহণযোগ্য হবে। এ অধ্যায়ের প্রশ্নগুলো বেশি করে অনুশীলনী করবে। লক্ষ্য রাখবে কোনো সেটের উপাদানগুলো বন্ধনী দ্বারা আবদ্ব করেছো কি-না। এ অধ্যায়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

 

প্রশ্ন ৬, ৭ ও ৮ এ থাকবে অষ্টম অধ্যায়ের চতুর্ভূজ সংক্রান্ত সম্পাদ্য ও উপপাদ্য, নবম অধ্যায়ের পীথাগোরাসের উপপাদ্য (৯.২, ৯.৩) ও দশম অধ্যায়ের বৃত্ত সংক্রান্ত উপপাদ্য এবং এ সকল অধ্যায়ের অনুশীলনী থেকে।

 

মনে রাখবে উপপাদ্যের বিশেষ নির্বাচনের পরে চিত্র অঙ্কণ করবে না। চিত্রের পর বিশেষ নির্বচন লিখবে। যেকোনো যুক্তিসঙ্গত প্রমাণ গ্রহণযোগ্য হবে। এবং পূর্ণ নম্বর পাবে।

 

জ্যামিতি অংশে অধিক নম্বর পাওয়ার জন্য তোমাদের আরও খেয়াল রাখতে হবে—

 

উপপাদ্য ও সম্পাদ্যের সাধারণ নির্বচন না লিখলেও কোনো ক্ষতি নেই।

 

চিত্রের পর বিশেষ নির্বচন লিখবে।

 

যেকোনো যুক্তি সঙ্গত প্রমাণ গ্রহণযোগ্য হবে। এবং পূর্ণ নম্বর পাবে।

 

জ্যামিতির উপপাদ্যের বিকৃত চিত্রাঙ্কণ করলে নম্বর পাওয়া যায় না। চিত্র যেনো চোখের দৃষ্টিতে শুদ্ধ হয়, সে দিকে খেয়াল রাখবে।

 

সম্পাদ্যের চিত্র যেন সঠিক হয় সেদিকে খেয়াল রাখবে। অংকনের প্রয়োজনীয় চিহ্ন না থাকলে নম্বর পাওয়া যায় না।

 

জ্যামিতি অনুশীলন করার সময় খাতায় সঠিক চিত্র এঁকে বারবার practice করবে।

 

কোনো সম্পাদ্য বা উপপাদ্য একই পৃষ্ঠায় সম্পূর্ণ লেখা হলে ভালো। তা না হলে বাম পৃষ্ঠায় উত্তর শুরু করে ডান পৃষ্ঠায় উত্তর লেখা শেষ করবে। কিন্তু উত্তর লিখতে যদি পাতা উল্টাতেই হয় তাহলে অবশ্যই ঐ পাতায় আরেকটি চিত্র আঁকবে। এতে তোমার চোখের সামনে চিত্র থাকায় চিত্র দেখে লিখতে যেমন সুবিধা হবে, তেমনি পরীক্ষকের খাতা মূল্যায়ন করতেও সুবিধা হবে।

 

প্রশ্ন ৯ এ থাকবে একাদশ অধ্যায়ের তথ্য ও উপাত্ত। অবিন্যস্ত উপাত্তকে বিন্যস্ত উপাত্তে পরিবর্তন করার সময় ট্যালি (Tally) চিহ্নের ব্যবহার যাতে সঠিক হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কারণ ট্যালি চিহ্নের ভুলের জন্য ঘটন সংখ্যা ভুল হবে এবং তোমার প্রশ্নের সমাধানও ভুল হবে। এখানেও প্রশ্নের উত্তরে সঠিক ‘একক’, আসন্ন উত্তরে ‘প্রায়’ লিখছ কি-না সে দিকে লক্ষ্য রাখবে।

 

বহুনির্বাচনি প্রশ্নের ক্ষেত্রে, পাটিগণিত অংশ থেকে ১০ থেকে ১২ টি, বীজগণিত অংশ থেকে ১০ থেকে ১৫ টি, জ্যামিতি অংশ থেকে ১০ থেকে ১৫টি এবং তথ্য ও উপাত্ত অংশ থেকে ২ থেকে ৪টি প্রশ্ন নিয়ে মোট ৪০টি প্রশ্ন থাকবে বহুনির্বাচনি প্রশ্নে। সব কয়টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এবং সকল অধ্যায় থেকে এ প্রশ্নসমূহ থাকবে। প্রতিটি বহুনির্বাচনি প্রশ্নের নম্বর ১ করে মোট নম্বর থাকবে ৪০। বহুনির্বাচনি প্রশ্নের একাধিক বিকল্প উত্তরে মার্কিং করলে নম্বর পাওয়া যায় না বিধায় তোমাকে এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Please wait...

Subscribe to our Site

Want to be notified when our article is published? Enter your email address and name below to be the first to know.