২ ডিসেম্বর সরকারী হাইস্কুলে ভর্তি কার্যক্রম শুরু

image_pdfimage_print

রাজধানীর ৩২টিসহ সারাদেশের সকল সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগামী ২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে নতুন শিক্ষাবর্ষের ভর্তি কার্যক্রম। ওই দিন রাজধানীর স্কুলগুলোতে প্রথমবারের মতো অনলাইনে ফরম বিতরণ ও জমা দানের মধ্য দিয়ে এ প্রক্রিয়া শুরু হবে। চলবে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। তবে রাজধানীর বাইরের স্কুলের ফরম বিক্রি, লটারি ও পরীক্ষা নিজেদের সুবিধামতো সময়ে নিতে পারবে জেলা ও উপজেলা ভর্তি কমিটি। প্রথম শ্রেণীর ভর্তি এবারও হবে লটারির মাধ্যমে। দ্বিতীয় শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণীতে আগের নিয়মেই হবে ভর্তিপরীক্ষা। মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকোটাসহ অন্য সকল বিধান বহাল থাকলেও ফরম মূল্য এবার ৫০ টাকা বাড়িয়ে ১৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
রাজধানীর সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো কম খরচ আর মানসম্মত শিক্ষাদানের বিবেচনায় এগিয়ে। তাই অভিভাবকদের কাছে আকর্ষণীয় হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে এসব প্রতিষ্ঠান। এ কারণে প্রতিবছর অভিভাবকরা অপেক্ষায় থাকেন কবে নাগাদ স্কুলগুলোতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) জানিয়েছে, নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে রাজধানীর ৩২টি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রী ভর্তির জন্য ২ ডিসেম্বর রাত ১২টা থেকে প্রথমবারের মতো অনলাইনে ভর্তির আবেদন ফরম পূরণ শুরু হবে। আগামী ১২ ডিসেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত এই ফরম পূরণ করা যাবে। প্রতি শ্রেণীতেই ভর্তি ফরমের মূল্য ১৫০ টাকা এবং মূল্য বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। ভর্তিসংক্রান্ত সকল তথ্য এবং সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটের বিষয়ে আগামী শনিবার অথবা রবিবার বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেবে অধিদফতর। অনলাইনে ভর্তির এ প্রক্রিয়া কেবল রাজধানীর সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে। জানা গেছে, রাজধানীর স্কুলগুলোকে এবারও এলাকা ভিত্তিতে ‘ক’, ‘খ’ ও ‘গ’-এই তিনটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। ‘ক’ গ্রুপে ১০টি, ‘খ’ গ্রুপে ১১টি এবং ‘গ‘ গ্রুপে রাখা হয়েছে ১১টি স্কুলকে। ৩২টি স্কুলের মধ্যে ১৪টিতে প্রথম শ্রেণী রয়েছে। তিন ক্যাটাগরির এই স্কুলগুলোতে আগামী ২৭ ডিসেম্বর প্রথম শ্রেণীর ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ভর্তিপরীক্ষা গ্রুপ অনুসারে যথাক্রমে ১৭, ১৮ ও ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ‘ক’ গ্রুপের স্কুলগুলো হচ্ছে গবর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, নিউ গবর্নমেন্ট গার্লস হাইস্কুল, ইসলামিয়া সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মিরপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, খিলগাঁও সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ও নবাবপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, আজিমপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, রূপনগর সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, দারুস সালাম সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শেখ জামাল সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ‘খ’ গ্রুপের স্কুলগুলো হচ্ছেÑ মতিঝিল সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, নারিন্দা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলা নগর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারী বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাইস্কুল, গবর্নমেন্ট মুসলিম হাইস্কুল, বাংলাবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ধানম-ি সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও ধানম-ি কামরুন্নেসা সরকারী বালিকা বিদ্যালয়, ডেমরার আলহাজ হাজী গফুর সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উত্তরখানের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও জুরাইনে শেখ কামাল সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ‘গ’ গ্রুপে রয়েছেÑ ধানম-ি গবর্নমেন্ট বয়েজ হাইস্কুল, টিকাটুলী কামরুন্নেসা সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তেজগাঁও সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল, আরমানিটোলা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলা নগর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, গণভবন সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ও তেজগাঁও সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর কমার্শিয়াল ইনস্টিটিউট সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হাজারীবাগ শেখ রাসেল সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ভাসানটেক সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়। প্রথম শ্রেণী আছে ১৪টি প্রতিষ্ঠানে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছেÑ গবর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, তেজগাঁও সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, খিলগাঁও সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, নারিন্দা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, বাংলাবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, শেরেবাংলা নগর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারী বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাইস্কুল এবং মোহাম্মদপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, ধানম-ি গবর্নমেন্ট বয়েজ হাইস্কুল, শেরেবাংলা নগর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তেজগাঁও সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, গণভবন সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় এবং আজিমপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষিত নীতিমালা অনুযায়ী, একই গুচ্ছের একাধিক স্কুল থেকে ভর্তি ফরম কেউ কিনতে পারবে না। একজন শিক্ষার্থী তিনটি গুচ্ছের প্রতিটি থেকে একটি করে সর্বোচ্চ তিনটি ফরম কিনতে পারবে। ভর্তি নীতিমালায় এবার সরকারী স্কুলে প্রথম শ্রেণীতে ভর্তিতে শিক্ষার্থীর ১ জানুয়ারিতে ৫ থেকে ৭ বছর বয়সের মধ্যে রাখা হয়েছে। শিক্ষার্থীর বয়স নির্ধারণের জন্য ভর্তির আবেদন ফরমের সঙ্গে জন্মনিবন্ধনের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে। নীতিমালায় বলা হয়েছে, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীতে গত বছরের মতোই ৫০ নম্বরের এক ঘণ্টার ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে। চতুর্থ থেকে অষ্টম শ্রেণীতে ১০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার পরীক্ষা নেয়া হবে আর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে নবম শ্রেণীতে শিক্ষার্থী ভর্তি করাতে হবে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীতে বাংলা ১৫, ইংরেজী ১৫ ও গণিতে ২০ নম্বর করে মোট ৫০ নম্বরের এক ঘণ্টার এবং অন্যান্য শ্রেণীতে বাংলা ৩০, ইংরেজী ৩০ ও গণিতে ৪০ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার পরীক্ষা নেয়া হবে।

37 thoughts on “২ ডিসেম্বর সরকারী হাইস্কুলে ভর্তি কার্যক্রম শুরু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Please wait...

Subscribe to our Site

Want to be notified when our article is published? Enter your email address and name below to be the first to know.